মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

ভৌগলিক পরিচিতি

অবস্থানঃ

ভৌগলিকভাবে বাসাইলের অবস্থান প্রায় ২৪.৯০’  ও ২৪.১৮’ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৯.৫৮’ পূর্ব দ্রাঘিমাংশের মধ্যে। টাংগাইল জেলা সদরের পূর্ব- দক্ষিণে বাসাইলের দূরত্ব ১৯ কিলোমিটার। বাসাইল উপজেলার পূর্ব সীমান্তে সখিপুর উপজেলা চিহ্নিত করে অদ্ভুত বক্রগমনে বংশী নদী প্রবহমান। দক্ষিণে মির্জাপুর ও দেলদুয়ার উপজেলা, পশ্চিমে জেলা সদর টাংগাইল ও উত্তরে কালিহাতী উপজেলা।

সীমা ও আয়তনঃ

কোন জনপদের অবস্থান স্থির থাকলেও সময়ের আবর্তনে তার আকার আকৃতির হেরফের ঘটে। সময়ান্তরে  কমে সময়ান্তরে বাড়ে। একে বলে সময়ের হাত। সময়ের এই  অমোঘ হাত থেকে কোন স্থানের চিরায়ত আকারকে রক্ষা করা খুব কঠিন কাজ। বাসাইলের সৃষ্টিকাল ১৯১৩ সন। তখন এ থানার ইউনিয়ন সংখ্যা ছিল ১০টি। (১) বাসাইল, (২) হাবলা, (৩) কাশিল, (৪) কাঞ্চনপুর, (৫) ফুলকী, (৬) কাউলজানী, (৭) যাদবপুর, (৮) হাতিবান্ধা, (৯) গজারিয়া, (১০) ডুবাইল। ১৯৭৬ সনে সখিপুর উপজেলা সৃষ্টি হয় ৬টি ইউনিয়ন নিয়ে। তম্মধ্যে ৩টি ইউনিয়ন বাসাইল থেকে নেয়া হয় যথা- (১) যাদবপুর, (২) হাতিবান্ধা (৩) গজারিয়া। ১৯৮৩ সনে দেলদুয়ার উপজেলা সৃষ্টি হলে ডুবাইলকে নেয়া হয় বাসাইল থেকে। ১৯৮৩ সনে অবশিষ্ট ৬টি ইউনিয়ন নিয়ে বাসাইল থানা রূপান্তরিত হয় বাসাইল উপজেলায়। বর্তমান বাসাইল উপজেলায় ৬টি ইউনিয়নের মৌজা সংখ্যা-৭৩ এবং গ্রাম সংখ্যা ১০৭। এর মোট আয়তন প্রায় ১৫৭.৭৮ বর্গকিলোমিটার, নদী ও জলাশয়ের পরিমাণ প্রায় ৪.৩ বর্গকিলোমিটার।